বড়লেখামৌলভীবাজার

মানবতার দেওয়ালে মানবতা নেই

আশফাক জুনেদ: মৌলভীবাজারের বড়লেখায় শীতকালে অসহায় ছিন্নমূল মানুষের জন্য তৈরি করা হয়েছিলো মানবতার দেওয়াল। এই দেওয়ালে এক শ্রেণীর মানুষেরা তাদের অ'প্রয়োজনীয় শীতের জামা কাপড় রেখে যেতেন এবং নিম্নশ্রেণীর মানুষ এখান থেকে তাদের প্রয়োজনীয় জামা কাপড় নিতেন। ঘটা করে উদ্বোধন করা হয়েছিলো এই মানবতার দেওয়ালের। কিন্তু ৩ বছরের মা'থায় সেই মানবতার দেওয়ালের মানবতা উধাও হয়েছে। তীব্র শীতে যখন অসহায় মানুষ কাপড়ের অভাবে বোধ করছে, তখন মানবতার দেওয়ালে গিয়ে কোন কাপড় খুঁজে পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে বৃহস্পতিবার উপজে'লার তারাদরম চৌমুহনীতে অবস্থিত এই মানবতার দেওয়াল ঘুরে দেখা যায়, দেওয়ালে কোন কাপড় নেই৷ একটি কাটের সাথে কাপড় ঝুলানোর জন্য বেশ কয়েকটি পেরেক মা'রা রয়েছে৷ পেরেকে কোন কাপড় ঝুলানো নেই। দেওয়ালের দুই পাশে লিখা রয়েছে, দিতে গর্ব নাই, নিতে লজ্জা নাই। অথচ কাপড়ের অভাবে এখন মানবতার দেওয়ালেই লজ্জা পাচ্ছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, তারাদরম এলাকার যুব সমাজের উদ্যোগে ২০১৯ সালে এলাকার ছিন্নমূল অসহায় দরিদ্র মানুষ যাদের শীত নিবারনের জন্য কোন কাপড় নেই তাদের সহযোগিতা করতে এই মানবতার দেওয়ালটি দেওয়া হয়েছিলো। প্রথম'দিকে এলাকার বিত্তশালীরা এই দেওয়ালে তাদের অ'প্রয়োজনীয় শীতের জামা কাপড় রেখে যেতেন। আবার যাদের প্রয়োজন তারা এই দেওয়াল থেকে তাদের প্রয়োজন মতো জামা কাপড় নিয়ে যেতেন। কিন্তু পরবর্তীতে কেউ আর এই দেওয়ালে জামা রাখেনি। তাই অনেকেই জামা কাপড় নিতে চাইলেও মানবতার দেওয়ালে কোন জামা কাপড় না পেয়ে খালি হাতে ফিরে যান।

স্থানীয় সমাজকর্মী রুবেল হোসাইন জানান, ‘একসময় এই দেওয়ালে কাপড় রাখা হতো৷ গরিব মানুষ তাদের প্রয়োজন মতো কাপড় নিতে পারতো। এখন আর আগের মতো দেওয়ালে কাপড় রাখা হয় না।

এ বিষয়ে মানবতার দেওয়ালের অন্যতম একজন উদ্যোক্তা খাইরুল ই'স'লা'ম বলেন, ‘২০১৯ সালে আম'রা মানবতার তরে এই দেওয়ালটি তৈরি করেছিলাম। এলাকার দরিদ্র মানুষ যারা লজ্জায় কারো কাছে শীতের জামা চাইতে পারে না তারা যেনো এই দেওয়াল থেকে তাদের প্রয়োজন মতো জামা কাপড় নিয়ে যেতে পারে সেজন্য এই উদ্যোগ গ্রহন করা৷ আম'রা এই দেওয়ালের মাধ্যমে এলাকার দুই থেকে তিনশত দরিদ্র মানুষকে সহযোগিতা করতে পেরেছি৷ ‘

Back to top button