সারাদেশ

গায়ে হলুদে নাচের ছবি তোলায় দুই গ্রামে ব্যাপক সং'ঘ'র্ষ

নিউজ ডেস্ক- কুমিল্লার হোমনায় গায়ে হলুদে মে'য়েদের নাচের ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সং'ঘ'র্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৪ জন গু'লিবিদ্ধসহ ২৪ জন আ'হত হয়েছেন। এ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পু'লিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে হোমনা উপজে'লার ঘাড়মোড়া বাজারে এ ঘটনা। হোমনা থা'না পু'লিশের ভা'রপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা (ওসি) মো. আবুল কায়েস আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় ও পু'লিশ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার বড় ঘাড়মোড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের মে'য়ের গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান ছিল। এ সময় হুজুরকান্দি গ্রামের কয়েকজন ছে'লে ডিজি পার্টিতে মে'য়েদের নাচের ভিডিও ও ছবি তোলে। স্থানীয়রা ছবি তুলতে বাধা দেয় ও মোবাইলে ধারণ করা ছবি ও ভিডিও ডিলেট করার চেষ্টা করে। এ নিয়ে উভ'য় পক্ষের মধ্যে বাগবিতণ্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বড় ঘাড়মোড়া গ্রামের বাসিন্দা সাব মিয়া স্থানীয় বাজারে দুধ বিক্রি করতে যান। এ সময় গায়ে হলুদের রাতে তাদের হে'ন'স্তা করায় কয়েকজন তরুণ সাব মিয়ার দুধ মা'থায় ঢেলে দেয়। এ সময় তাকে মা'রধর ও অ'পমান করা হয় বলে অ'ভিযোগ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় সাব মিয়ার ভাই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে হুজুরকান্দি গ্রামের ১৫ জনকে আ'সা'মি করে থা'নায় একটি মা'ম'লা করেন। মা'ম'লার পর পু'লিশ একজনকে গ্রে'প্তা'র করে।

এরপর থেকে দুই গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে উ'ত্তে'জ'না ছড়িয়ে পড়ে। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে হুজুরকান্দি ও বড় ঘাড়মোড়া গ্রামের বাসিন্দারা দেশীয় অ'স্ত্র নিয়ে সং'ঘ'র্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় ৪ জন গু'লিবিদ্ধসহ ২৪ জন আ'হত হয়েছেন। এদের মধ্যে ১২ জনকে হাসপাতা'লে ভর্তি করা হয়েছে বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পরিস্থিতি ভ'য়াবহ হওয়ায় থা'নায় খবর দিলে পু'লিশ এসে নিয়ন্ত্রণ করে।

ঘারমোড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহ'জাহান মোল্লা জানান, গত বৃহস্পতিবার বিয়ে বাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে ছে'লেদের মধ্যে মা'রামা'রির ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে গতকাল শনিবারও একজনকে মা'রার ঘটনায় থা'নায় মা'ম'লা হয়। এর জের ধরে আম'রা বিষয়টি মিটমাট করার জন্য বসলে হুজুরকান্দি ও বড় ঘারমোড়া গ্রামের লোকজন নিজেদের মধ্যে সং'ঘ'র্ষে জড়িয়ে পড়ে। ঘটনা আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার থা'নায় খবর দিলে পু'লিশ এসে নিয়ন্ত্রণ করে।

হোমনা থা'নার ইনচার্জ (ওসি) মো.আবুল কায়েস আকন্দ আরটিভি নিউজকে জানান, বিয়ে বাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে এ সং'ঘ'র্ষের ঘটনা ঘটেছে। দুই গ্রামের লোকজন তাদের আধিপত্য বজায় রাখতে সং'ঘ'র্ষে জড়িয়ে পড়ে। আম'রা ঘটনার যথাযথ ত'দ'ন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Back to top button