সারাদেশ

১৬ বছর পর স্কুলছাত্র হ’ত্যা র’হ’স্য উদঘাটন

টাইমস টিভি ডেস্কঃ ১৬ বছর আগে সোহেল পারভেজ নামে এক স্কুলছাত্রকে হ’ত্যার দায় স্বীকার করে আ’দা’লতে ১৬৪ ধারায় জবানব’ন্দি দিয়েছে দুই আ’সা’মি। বুধবার বিকালে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আ’দা’লতের হাকিম শাকিল আহমেদের আ’দা’লতে আ’সা’মিরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি দিয়েছেন।আ’সা’মিরা হলেন- সাটুরিয়া উপজে’লার বরাইদ গ্রামের আব্দুল জলিলের ছে’লে সাইফুল ই’স’লা’ম (৩৩) ও সোনা মিয়ার ছে’লে বাদল মিয়া (৩০)।নি’হ’ত সোহেল পারভেজ জে’লার সাটুরিয়া উপজে’লার বরাইদ ইউনিয়নের উত্তর বরাইদ গ্রামের স্কুল শিক্ষক মৃ’ত হাবিবুর রহমানের ছে’লে।

মানিকগঞ্জ পিবিআইয়ের অ’তিরিক্ত পু’লিশ সুপার এম কে এইচ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, নি’হ’ত সোহেল পারভেজ ২০০৪ সালের এসএসসি মানোন্নয়ন পরীক্ষার্থী ছিল। তিনি ২০০৩ সাল থেকে পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা করত। সোহেলকে কমমূল্যে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার কথা বলে ২০০৪ সালের ১৫ জুনে বিকালে স্থানীয় ইউনুছ আলী নামে এক ব্যক্তি তাকে ডেকে নিয়ে যায়। দুই দিন নিখোঁজ থাকার পর ১৮ জুন সাত লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে একটি চিঠি পায় সোহেলের পরিবার। পরে ২৯ জুন সোহেলের বাবা সাটুরিয়া থা’নায় চারজনকে অ’ভিযু’ক্ত করে একটি মা’ম’লা করেন। পরে মা’ম’লা’টি থা’না পু’লিশ, ডিবি পু’লিশ ও সিআইডি ত’দ’ন্ত শেষে চারজনকে অ’ভিযু’ক্ত করে ২০০৯ সালের ১৪ নভেম্বর আ’দা’লতে চার্জশিট দাখিল করেন। আ’দা’লত মা’ম’লার বিচারকার্য চলার সময়ে ত’দ’ন্তে সন্তুষ্ট না হয়ে গত ২০২০ সালের ২৪ নভেম্বর পিবিআই মানিকগঞ্জকে ত’দ’ন্তের নির্দেশ দেন।

তিনি আরো জানান, ১৬ বছর আগের ঘটনা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ করে প্রধান অ’ভিযু’ক্ত ইউনুছ আলীকে (৩৫) মাসখানেক আগে গ্রে’প্তা’র করে পিবিআই রি’মা’ন্ডের আবেদন জানালে আ’দা’লত তিন দিনের রি’মা’ন্ড মঞ্জুর করেন। পরে রি’মা’ন্ডে জিজ্ঞাসাবাদে অ’ভিযু’ক্ত ইউনুছ আলী পরিক’ল্পি’তভাবে টাকা আদায়ের উদ্দেশ্যে সাইফুল ও বাদলের সহযোগিতায় সোহেলকে শ্বা’সরোধে হ’ত্যা করে নদীতে ভাসিয়ে দেয়। পরে তার দেয়া তথ্যানুযায়ী গত রবিবার নারায়নগঞ্জ থেকে আনসার সদস্য সাইফুল ও মঙ্গলবার সাটুরিয়ায় বরাইদ গ্রাম থেকে বাদল মিয়াকে গ্রে’প্তা’র করা হয়। পরে আ’দা’লতে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি দেয়। মা’ম’লার আরেক আ’সা’মি পলাতক রয়েছে।

Back to top button