অপরাধ

ফকিরের পড়া রুটি খেয়ে মৃ’ত্যুমুখে কলেজছাত্র

টাইমস টিভি ডেস্কঃ শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজে’লায় একটি জাল চু’রির সালিশের সিদ্ধান্তে কবিরাজের পড়া রুটি খেয়ে মাইনুল হাসান নামে এক কলেজ ছাত্র মৃ’ত্যুমুখে পড়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে উপজে’লার ঢালীকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্বজনদের অ’ভিযোগ, ওই ছাত্রকে রুটির সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাওয়ানো হয়েছে।

এদিকে অ’সুস্থ মাইনুল হাসান ওই গ্রামের মাস্টার ফজলুর রহমানের ছে’লে। সে কুমিল্লা সরকারি পলিটেকনিকের মেকানিকাল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

প্রায় দুই সপ্তাহ আগে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজে’লার আব্দুর রব ঢালীর মাছ ধ’রার জাল চু’রি হয়। এজন্য প্রতিবেশী মাইনুলকে স’ন্দেহ করেন তিনি। এরপর চো’র শনাক্তের জন্য কবিরাজের কাছ থেকে আটা ও চিনি নিয়ে আসেন আব্দুর রব।

পরে গতকাল সকালে রুটি বানিয়ে প্রতিবেশী মাইনুলকে খাওয়ানো হয়। রুটি খাওয়ার কিছুক্ষণ পরই অ’সুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পরে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতা’লে নেয়া হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় নেয়ার পরাম’র্শ দেন চিকিৎসক।

মাইনুলের বোন আয়শা আক্তার বলেন, আব্দুর রব ঢালী ও তার ছে’লে হাবিবুর রহমান ঢালী, মোশারফ ঢালী ও আরিফুর রহমান ঢালী মিলে আমা’র ভাইকে পূর্ব পরিকল্পনা করে রুটির সঙ্গে বিষ মিশিয়ে হ’ত্যা করতে চেয়েছে। আমা’র ভাই মৃ’ত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা ল’ড়ছে। আমা’র ভাইয়ের এ অবস্থার জন্য যারা দায়ী তাদের দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তি চাই।

এ বিষয়ে অ’ভিযু’ক্ত আব্দুর রব ঢালী বলেন, আমা’র জাল চু’রি হয়েছে। চু’রির বিষয় কেউ স্বীকার করে না। তাই ফকিরের পড়া আটা এনে রুটি বানিয়ে গ্রামের লোকদের খাইয়েছি। রুটি খেয়ে মাইনুল অ’সুস্থ হলো কেন জানি না?

নড়িয়া থা’না পু’লিশের ওসি (ত’দন্ত) প্রবীণ কুমা’র চত্রবর্তী বলেন, জাল চু’রির ঘটনায় আব্দুর রব ঢালী গ্রামের লোকদের ফকিরের পড়া রুটি খাওয়ায়। সেই রুটি খেয়ে এক কলেজ ছাত্র অ’সুস্থ হয়ে হাসপাতা’লে। আম’রা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আমাদের ত’দন্ত অব্যাহত আছে। এখনও থা’নায় কেউ অ’ভিযোগ করতে আসেনি। অ’ভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

Back to top button